রাজ্যের প্রত্যেকটি পরিবার স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্পের সুবিধা, ভোটের আগে স্বাস্থ্য পরিষেবায় বিরাট সিদ্ধান্ত মমতার।

আসন্ন বিধানসভা ভোটের আগেই এক বিরাট সিদ্ধান্ত নিল মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ‌ পশ্চিমবঙ্গ সরকার তরফে জানানো হয়েছে, মধ্যেই রাজ্যের সাড়ে সাত কোটি বাসিন্দা ‘স্বাস্থ্য সাথী’ প্রকল্পের আওতাভুক্ত ছিলেন। কিন্তু এবার, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় চাইছেন প্রকল্পটির বিস্তার ঘটাতে। আর সেই কারণেই মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণা করলেন, ‘স্বাস্থ্য সাথী’ প্রকল্পের আওতায় আনা হবে রাজ্যের সব নাগরিককে। আগামী ১ ডিসেম্বর থেকেই এই সুবিধা চালু করা যাবে বলে জানানো হয়েছে।
নবান্ন সূত্রে দাবি করা হয়েছে, প্রত্যেক পরিবারকে সরকারি স্বাস্থ্য বীমার আওতায় নিয়ে আসার মতো ঘটনা এখনো পর্যন্ত কোন রাজ্যে হয়নি।
তবে যে সমস্ত নাগরিক কর্মসূত্রে বা অন্যান্য কারণে বিভিন্ন সরকারি বীমার সুবিধা পান, তাদের আলাদা করে স্বাস্থ্য সাথীর সুবিধা দেওয়া হবে না।
স্বাস্থ্যকর্মীরা নির্দিষ্ট দিনে বিভিন্ন ওয়ার্ডের বাড়ি বাড়ি পৌঁছে যাবেন। নাম-ঠিকানা সমেত অন্যান্য প্রয়োজনীয় তথ্য সংগ্রহ করা হবে। আর তার ভিত্তিতেই তৈরি হবে ‘স্বাস্থ্য সাথী’ কার্ড। নির্দিষ্ট সরকারি অফিসে গিয়ে স্বাস্থ্য সাথী কার্ড সংগ্রহ করতে হবে প্রাপকদের।

Covid

Co