করোনায় আক্রান্ত প্রৌঢ় নিরুদ্দেশ হয়ে গেলেন কলকাতা মেডিকেল হাসপাতাল থেকে।

পাইকপাড়ার বাসিন্দা বছর ষাটেকের এক প্রৌঢ়কে জ্বর নিয়ে ভর্তি করানো হয়েছিল আরজিকরে।প্রৌঢ়ের করোনা পরীক্ষা করানো হলে, রিপোর্ট পজিটিভ আসার পরই বৃদ্ধকে তৎক্ষণাৎ স্থানান্তরিত করা হয় কলকাতা মেডিকেল কলেজে।
এরপর এদিন সকালে প্রৌঢ়র মেয়ে বাবার কাছে একটি মোবাইল ফোন পৌঁছে দিতে এলে, উপস্থিত ওয়ার্ড বয় জানায় তিনি প্রৌঢ়কে খুঁজে পাননি। এরপরে চিকিৎসকদের সঙ্গে কথা হলে তারাও একই কথা জানায়। এই ঘটনার সময়েই হাসপাতাল কতৃপক্ষ স্বীকার করে নেন যে ওই করোনা আক্রান্ত নিখোঁজ।
রোগীর পরিবার পরিজনের অভিযোগ, কলকাতা মেডিকেল কলেজের ক্যাজুয়ালিটি বিল্ডিংয়ের এত বেশিসংখ্যক নিরাপত্তারক্ষী থাকার পরেও একজন রোগী কিভাবে নিখোঁজ হয়ে গেল? আর যদি রোগীর নিখোঁজ হয়ও তাহলে তা পরিবার-পরিজনকে জানানো হলো না কেন! হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ইচ্ছাকৃত ভাবে রোগী নিখোঁজ হওয়ার বিষয়টি চেপে গিয়েছিল। তবে মেডিকেলের সুপার ইন্দ্রনীল বিশ্বাস জানিয়েছে, লুকানোর কোন বিষয় নেই। সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

Covid

Co