আয়ুষ চিকিৎসকদের সরকার নির্দেশিত ওষুধ দেওয়ায় অনুমতি

ইন্ডিয়ান মেডিকেল এসোসিয়েশন অর্থাৎ আইএমএ-র কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য দফতরের বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল তারা প্রমান ছাড়া যেকোনো ওষুধকেই করোনার ওষুধ বলে মান্যতা দিচ্ছিলো। কখনো আবার আয়ুষ দফতর বিনা প্রমানে নির্দিষ্ট কোনো ওষুধকে করোনার ওষুধ বলে প্রচার চালাচ্ছিল। তার বিরুদ্ধেই প্রতিবাদ করেছিল আইএমএ। সেই মামলারই রায় দিলো সুপ্রিম কোর্ট। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী ,রোগীর প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর জন্য সরকার নির্দেশিত ওষুধ প্রেস্ক্রাইব করতে পারবে আয়ুষ চিকিৎসক এবং হোমিওপ্যাথরা। তবে ঐসমস্ত ওষুধকে করোনার ওষুধ হিসেবে প্রচার করতে পারবেন না তারা। রোগ প্রতিরোধকারী ক্ষমতা বাড়ানোর ওষুধ হিসেবে সেগুলিকে প্রেস্ক্রাইব করতে হবে। রায় ঘোষণার পর আইএমএ-র এক সদস্য জানিয়েছেন, এই রায়ের মধ্যে দিয়ে তাদের প্রতিবাদই মান্যতা পেয়েছে।

Covid

Co