অশোকনগরকে সিঙ্গুর হতে দেব না’ -এই শ্লোগানকে সামনে রেখে তেল খনন স্থলের বাইরে প্রতীকী বিক্ষোভ দেখানো সিপিএম

২০০৯ সাল থেকে অশোকনগরে তেলের সন্ধানে খনন কাজ শুরু করেছে রাষ্ট্রায়ত্ত ওয়েল অ্যান্ড ন্যাচারাল গ্যাস কমিশন বা ওএনজিসি। ২০১৭ সালেই জানা যায় এখানকার মাটির নিচে রয়েছে খনিজ তেল ও গ্যাসের অফুরান ভান্ডার। ২০১৭ সালেই অশোকনগর-কল্যাণগড় পৌরসভার মধ্যস্থতায় বেশ কয়েক একর জমি তারা নেয় ওই তেল উত্তোলনের পরীক্ষা চালানোর জন্য। আর এখন স্থায়ী ভাবে তেল ও গ্যাস উত্তোলন শুধু সময়ের অপেক্ষা, যার জন্য অবশ্য চাই আরও বেশ কিছু জমি, কিন্তু ২০১৭ সালে যে জমি নেওয়া হয়েছিলো সেই জমির মালিকদের অভিযোগ, প্রতিশ্রুতি মতো ক্ষতিপূরণের টাকা এখনো আসেনি তাদের হাতে, এমনটাই জানালেন এক স্থানীয় কৃষক।
আর এই অভিযোগের ভিত্তিতে নতুন জমিদাতারাও বেঁকে বসেছেন জমি দিতে, এবার সেই জমি জট খুলতে পথে নামলো সিপিএম। সিঙ্গুর সমস্যা থেকে শিক্ষা নিয়ে, পথ অবরোধ, বিক্ষোভ বা আইনী জটিলতা সৃষ্টি করে নয়, সিপিএম চাইছে সমবেত ভাবে আলোচনার মাধ্যমে ওএনজিসি কর্তৃপক্ষের সাথে আলাপ-আলোচনা করে জমিদাতারা উপযুক্ত আর্থিক ক্ষতিপূরণের সাথে সাথে অশোকনগরের বেকার যুবক-যুবতীদের যোগ্যতা অনুযায়ী কর্মসংস্থান নিশ্চিত করুক ওএনজিসি। আজ স্থানীয়দের নিয়ে প্রকল্পের বাইরে প্রতীকী বিক্ষোভ দেখানোর পর কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনায় বসেন বাম নেতৃত্ব। তারপর পৌরসভার প্রাক্তন বিরোধী দলনেতা চিত্তরঞ্জন বিশ্বাস জানালেন, তারা অশোকনগরকে কোন ভাবেই সিঙ্গুর হতে দেবেন না, কারখানাও হবে, আবার উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ ও চাকরীও দিতে হবে সংস্থাকে।

Covid

Co