১৯৯৯ সালের একটি খুনের মামলায় মূল অভিযুক্তের শাস্তির দাবীতে বিক্ষোভ বনগাঁ আদালতে

খুনের ঘটনা ঘটেছিলো ১৯৯৯ সালের ৪ঠা নভেম্বর,খুন হয়েছিলেন বনগাঁর তৎকালীন তৃণমূল নেতা সূর্য শংকর রায় চৌধুরী, মূল অভিযুক্ত ছিলেন সিপিএম নেতা দেবদাস মন্ডল। পরিবর্তনের পর লালের ঘর ছেড়ে যিনি বসত করেছিলেন ঘাসফুলে, তারপর এখন তিনি পদ্ম শিবিরে। আশ্চর্যের বিষয় হলো, একটি রাজনৈতিক খুনের মামলা কিন্তু সেই ২০১৬ সালের পর থেকে আর কোনোদিন আদালতে শুনানী হয়নি, বলতে গেলে ধামাচাপা পড়ে যায় খুনের মামলাটি। এদিন ছিলো সেই খুনের মামলার শুনানী,কিন্তু আসামী পক্ষ হাজির না থাকায় আগামী ৪ঠা ডিসেম্বর ফের শুনানীর দিন ধার্য হয়েছে। আর এবার একদা সিপিএম, পরবর্তীতে তৃণমূল এবং বর্তমান বিজেপি নেতা দেবদাস মন্ডলের কঠোরতম শাস্তির দাবীতে এদিন আদালত চত্বরে বিক্ষোভ দেখায় তৃণমূল কর্মী সমর্থকরা, যার মধ্যে ছিলেন নিহতের ভাই সৌমেন্দ্র রায়চৌধুরীও।

তবে নিন্দুকের প্রশ্ন, ১৯৯৯ সালের খুনের মামলার মূল আসামী কি পরিবর্তনের পর দলবদলের সুযোগ নিয়ে এতদিন হাজতের বাইরে ছিলো? সিপিএম ছেড়ে তৃণমূলে যোগদানের পুরস্কার ছিলো কি আদালতের নীরবতা, আর এখন বিজেপি হয়ে যাবার পরেই ফের সক্রিয় পুলিশ?

Covid

Co