বেসরকারি স্কুল গুলির ফি নিয়ে বিতর্ক অব্যাহত : কমিটি গড়ল কোর্ট।

হাইকোর্ট জানিয়ে দিয়েছিল ১৫ ই আগস্ট এর মধ্যে সমস্ত বেসরকারি স্কুল গুলির বকেয়া ফি অভিভাবকদের মিটিয়ে দিতে হবে। তারপর কিছুটা হলেও স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলে ছিল স্কুল কর্তৃপক্ষ গুলি। কিন্তু পরে দেখা যায় লাভ কিছুই হয়নি। ৮০% অভিভাবকেরাও ফি জমা করেননি। তারপর থেকেই অভিভাবকদের দাবি ছিল তারা প্রয়োজনীয় টিউশন ফি ছাড়া, ল্যাবরেটরি, লাইব্রেরী অন্যান্য প্রয়োজনীয় ফি জমা দেবেন না।
এই পরিস্থিতিতে, বেসরকারি স্কুলের খরচা এবং অন্যান্য দিক খতিয়ে দেখতে তিন সদস্যের একটি বিশেষজ্ঞ কমিটি গড়ার সিদ্ধান্ত নিল কলকাতা হাইকোর্ট।

সূত্রের খবর যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সুরঞ্জন দাস এই কমিটির সদস্য হবেন, অন্যান্য দুই সদস্যের নাম এখনো জানা যায়নি। মূলত স্কুলগুলি কোন খাতে কত খরচ করছে, তারা যে বেতন দাবি করছে তা কতটা সঠিক, সেইসব দেখে বিচার করায় কমিটির মূল কাজ হবে। এই বিশেষজ্ঞর কমিটিতে একজন চার্টার্ড একাউন্টেন্ট কেও নিয়োগ করা যেতে পারে বলে সূত্রের খবর।

আরও পড়ুন : http://7anews.com/safe-homes-will-be-in-cctv-surveillance/ (এবার সেফ হোমে বসানো হবে সিসি ক্যামেরা।)

কোর্ট জানিয়েছে, যে সমস্ত অভিভাবকেরা নির্ধারিত দিনের মধ্যে ফি ক্লিয়ার করতে পারেননি, তাদের আরো এক সপ্তাহ সময় দেওয়া হবে। অভিভাবক এবং স্কুল কর্তৃপক্ষ সকলের কথা মাথায় রেখেই সিদ্ধান্ত দেওয়ার চেষ্টা করবে কমিটি।

Covid

Co