মানভঞ্জনে বিধায়ক শীলভদ্র দত্তের বাড়িতে মন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক, বাড়িতে অনুপস্থিত শীলভদ্র দত্ত জানালেন, ‘আলোচনার কোনো জায়গা নেই

পানিহাটির বাসিন্দা , ব্যারাকপুরের দু’বারের বিধায়ক, শীলভদ্র দত্ত নির্বাচনের বহু আগেই জানিয়ে দিয়েছেন দলে তার অবস্থানের কথা , বিজয় সম্মেলনীর অনুষ্ঠান থেকে তিনি ঘোষণা করেছিলেন , দলে থাকবেন , তবে আর ব্যারাকপুরের বিধায়ক পদে নির্বাচন লড়বেন না । বিষয়টি তেমন গুরুত্ব পায়নি এত দিন , কিন্তু দলের দাপুটে যুবনেতা শুভেন্দু অধিকারী নিরব বিপ্লব শুরু করতেই নড়ে চড়ে বসেছে তৃণমূল নেতৃত্ব । এক দিকে যখন কলকাতায় বর্ষিয়ান নেতারা, প্রশান্তভুষনকে সাথে নিয়ে ব্যস্ত দলের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ নেতা , সদ্য প্রাক্তন মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীর মানভঞ্জনে , ঠিক তখনই রাজ্যের মন্ত্রী , দলের জেলার শীর্ষ নেতা জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক দেখা করতে এলেন ব্যারাকপুরের বিধায়ক শীলভদ্র দত্তের পানিহাটির বাড়িতে , তবে ঠিক সেই সময়টিতে কাকতালীয় ভাবে বাড়িতে ছিলেন না অভিমানী বিধায়ক শীলভদ্র দত্ত , বাড়িতে উপস্থিত বোন কৃষ্ণা দত্তের সাথে সৌজন্য বিনিময় করে চা খেয়ে মাননীয় মন্ত্রী জানালেন ‘ কোন মানভঞ্জনের জন্য নয় , তিনি এসেছিলেন তার ৪৫ বছরের পুরনো বন্ধুর সাথে সাক্ষাৎ করতে , তার শারীরিক অবস্থার খোঁজ নিতে । তবে আসল বোমাটা ফাটিয়ে দিলেন বিধায়কের দিদি কৃষ্ণা দত্ত , জানালেন জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক জানিয়ে গেছেন সবকিছুর পেছনে রয়েছে পৌরপ্রশাসক উত্তম দাসের হাত । সব শেষে বাড়ি ফিরে শীলভদ্র দত্ত জানালেন , তারা আর দলের নেতাদের সাথে কোন আলোচনা নেই , আজকের পরিস্থিতি কি বা কেন , তার সবটাই জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক জানেন ভালো করে , তবে তিনি দলের প্রতি কৃতজ্ঞ , অসুস্থ থাকার সময় পাশে থাকার জন্য ।

Covid

Co