পাচারের ছক বানচাল করে নাবালিকাকে উদ্ধার করল পুলিশ

তেরো বছরের এক নাবালিকাকে গঙ্গাসাগর থেকে অপহরণ করে কর্নাটকে নিয়ে গিয়ে পাচারের ছক কষেছিল দুই যুবক। গঙ্গাসাগরের বাসিন্দা ওই নাবালিকা গত ১১ নভেম্বর বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয়ে যায়। ১২ নভেম্বর ওই নাবালিকার বাবা গঙ্গাসাগর উপকূল থানার দ্বারস্থ হন। পুলিশ তদন্ত করে জানতে পারে, স্থানীয় দুই যুবক সমীর কয়াল ও সৌরভ কয়াল বেশ কিছুদিন ধরে উত্ত্যক্ত করছিল ওই নাবালিকাকে। তারা বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ওই নাবালিকাকে কর্নাটকে নিয়ে যায় বলে পুলিশ জানিয়েছে। দুজনের মোবাইল ফোন ট্র্যাক করে পুলিশ জানতে পারে তারা কর্নাটকের হাসান থানার তেজুরে রয়েছে। গঙ্গাসাগরের উপকূল থানা হাসান থানায় যোগাযোগ করে। উপকূল থানার ওসি দেবাশীষ রায়ের নির্দেশে সাব-ইন্সপেক্টর পরিমল দাস এর নেতৃত্বে পুলিশের পাঁচ জনের একটি দল কর্ণাটক পৌঁছে এদিন রাতে নাবালিকাকে উদ্ধার করে এবং ওই দুই যুবককে গ্রেফতার করে। ধৃত দুই যুবক গঙ্গাসাগরের ধবলাট প্রসাদপুরের বাসিন্দা। তাদের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধি ৩৪,১২০বি,৩৬৩,৩৬৫ ধারায় মামলা করেছে পুলিশ। আজ তাদের কাকদ্বীপ মহকুমা আদালতে তোলা হবে। অপরদিকে ওই নাবালিকাকে জেলা চাইল্ড ওয়েলফেয়ার কমিটির কাছে পেশ করা হবে।

Covid

Co