স্বাস্থ্যসাথীর ব্যয়ভার সরাসরি বহন করবে রাজ্য সরকার।

সম্প্রতি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন রাজ্যের প্রত্যেকটি পরিবার স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্পের সুবিধা পাবেন। এতদিন যাবৎ রাজ্যের প্রায় এক কোটির বেশি পরিবার স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্পের সুবিধা পেয়ে এসেছে। কিন্তু এবার তাতে যুক্ত করা হচ্ছে প্রত্যেকটি পরিবারকে।
এদিন সহজভাবে সাধারণ মানুষের কাছে কিভাবে স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্প কে পৌঁছানো যায় তা নিয়ে একটি বৈঠক করেন রাজ্যের মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্যকর্তারা। আর এই বৈঠকেই ঠিক হয় , স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্প কে ট্রান্সফার করা হয়েছে অ্যাসিওরেন্স মোডে। অর্থাৎ , স্বাস্থ্য সাথীর ব্যয় ভার সরাসরি রাজ্য সরকার বহন করবে।
রাজ্য সরকার তরফে জানানো হয়েছে, গ্রাহকের সংখ্যা প্রচুর হওয়ায়, তারা মাঝে থার্ড পার্টি চাইছেন না। মাঝে থার্ড পার্টি থাকলে অনেক সময় অনেক সময় টাকা তাদের হাতে চলে যায়।

Covid

Co