রাতারাতি বদলে গেল মালদা জেলা ক্রীড়া সংস্থার স্টেডিয়ামের নাম

রাতারাতি দলবদলের কথা আমরা সকলেই শুনেছি। কিন্তু রাতারাতি স্টেডিয়ামের নাম পরিবর্তনেই কথা শুনেছেন কি ? না কোন গল্প কথা নয় , রাতারাতি মালদা জেলা ক্রীড়া সংস্থার স্টেডিয়ামের নাম পরিবর্তন করে দেওয়া হল শুভেন্দু চৌধুরী স্টেডিয়াম। রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী ও তৃণমূল নেতা কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরীর দাদার নামে স্টেডিয়ামের নামকরণ ঘিরে ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে বিতর্ক। প্রসঙ্গত ,১৯৬২ সালে তৎকালীন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী বিধানচন্দ্র রায় মালদা জেলা ক্রীড়া সংস্থার স্টেডিয়ামের শিলান্যাস করেন।১৯৭৫ সালে এই স্টেডিয়ামের বেশ কয়েকটি ব্লক তৈরি হয় । মূলত ডি,এস,এ স্টেডিয়াম নামে এই স্টেডিয়াম পরিচিত। যার সভাপতি মালদার জেলাশাসক ও সম্পাদক প্রাক্তন মন্ত্রী কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরী। সম্প্রতি জেলা ক্রীড়া সংস্থার সংস্কারের কাজ হয়। আর সেই কাজ সম্পন্ন হতেই নাম পাল্টে যায় স্টেডিয়ামের। শুভেন্দু চৌধুরী স্টেডিয়াম নামকরণ করা হয় এই স্টেডিয়ামের।শুভেন্দু চৌধুরী রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী তথা তৃণমূল নেতা কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরীর দাদা। কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরী মন্ত্রী হওয়ার পর ডি,এস,এর সম্পাদক হন তিনি । দীর্ঘ আট বছর ওই পদে ছিলেন শুভেন্দু চৌধুরী ।তার মৃত্যুর পর জেলা ক্রীড়া সংস্থার সম্পাদক কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরী দায়িত্ব ভার নিতেই নাম পাল্টে যায় স্টেডিয়ামের। আর যা নিয়ে শুরু হয়েছে তীব্র বিতর্ক। যদিও রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরীর বক্তব্য সর্বসম্মতক্রমে সিদ্ধান্ত নিয়ে এই নামকরণ করা হয়েছে। দীর্ঘ আট বছর তার দাদা ডি,এস,এ এর সম্পাদক ছিলেন। তাই এই সিদ্ধান্ত।

Covid

Co