লকডাউন চলাকালীন বিদ্যুৎ বিলকে অস্বাভাবিক আখ্যা দিয়ে রাজ্য জুড়ে বিক্ষোভ বিজেপির

২০২০ সালে মানুষকে যে আরো কত বিপর্যয়ের মুখোমুখি হতে হবে তা জানেন না কেউই, করণা বা আমফান না হয় মানুষের হাতে নেই, কিন্তু লকডাউন চলাকালীন সময়ের বিদ্যুৎ বিল? সেটা তো বানিয়েছে মানুষই। হতে পারে সেই মানুষটা রাজ্য বিদ্যুৎ পর্ষদ অথবা সি ই এস সি কর্মী। অভিযোগ, গত তিন মাস, যে বিল সাধারণ মানুষ হাতে পেয়েছে তা এককথায় মাত্রাছাড়া। বিদ্যুৎ বন্টন এর দায়িত্বে থাকা ডব্লিউ বি এস ই ডি সি এল বা সি ই এস সি জানিয়েছে করণা সংকট ও আম ফান বিপর্যয়ের পরে তাদের কর্মীরা বাড়ি বাড়ি ঘুরে মিটার রিডিং নিতে পারেননি, তাই কোথাও কোথাও সামান্য ভুল হয়ে থাকতে পারে। এখানে প্রশ্ন, তাহলে ওই বিপর্যয়ের সময় বিল বানানো হলো কি করে? কিভাবেই বা সেই বিলের টাকা জমা নেওয়া হলো? বাড়ি বাড়ি পৌঁছে মিটার রিডিং নেয়া সম্ভব নয়, কিন্তু নির্দিষ্ট সময়ে বাড়িতে বিল পৌঁছে গেল কিভাবে? আরও অভিযোগ, যে বিল পাঠানো হয়েছে তার কোনো বাস্তব ভিত্তি নেই। এ সমস্ত অভিযোগে, এদিন বিজেপি রাজ্যের সমস্ত বিদ্যুৎ বণ্টনকারী সংস্থাগুলোর সামনে বিক্ষোভের ডাক দিয়েছিল। হাওড়ায় বিক্ষোভকারীরা সি ই এস সি’র দপ্তরে তালা ঝুলিয়ে দিতে গেলে তুমুল উত্তেজনা সৃষ্টি হয়, বিক্ষোভের নেতৃত্বে ছিলেন সায়ন্তন বসু ও সঞ্জয় সিং। পাশাপাশি বিক্ষোভ দেখানো হয় সি ই এস সি এর কামারহাটি বরানগর টিটাগর প্রভৃতি দপ্তরের সামনেও।

https://youtu.be/OdhWmr_5XII

Covid

Co