পৃথিবা পঞ্চায়েতের কুলতলা এলাকায় নাবালিকার ঝুলন্ত নিথর দেহ উদ্ধার , আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগে গ্রেপ্তার নাবালক বন্ধু

নিজের ঘর থেকে উদ্ধার নাবালিকার ঝুলন্ত নিথর দেহ , আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগে গ্রেফতার নাবালক বন্ধু । উত্তর চব্বিশ পরগনা জেলার হাবরা থানার অন্তর্গত পৃথিবা পঞ্চায়েতের কুলতলা এলাকার ঘটনা । মৃত নাবালিকা পৃথিবা রাধাবানী গার্লস হাই স্কুলের ছাত্রী । মৃত নাবালিকার বাবা ইন্দ্রজিৎ পাল জানা , একই জায়গায় টিউশন পরত মৃত নাবালিকা ও তার এক সহপাঠী রাঘবপুর এলাকা এলাকার বছর ১৫ র নাবালক। দু’জনের বন্ধুত্বের সুবাদে নাবালিকার বাড়িতে মাঝেমধ্যেই যাতায়াত হতো নাবালকের।পরবর্তীতে তারা একে অপরের প্রেমের সম্পর্কে আবদ্ধ হয় বলে স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে। বুধবার বাড়িতে কারোর না থাকার সুযোগ নিয়ে দুপুরে নিজের ঘরে ঘুমিয়ে পরলে , পরবর্তীতে নাবালিকার জেঠু বিকেল নাগাদ বাড়িতে এসে ডাকাডাকি করতে সারা না মেলায় ঘরে ঢুকতেই তার ঝুলন্ত দেহ দেখতে পান । হাবরা থানায় খবর দেওয়া হলে পুলিশ গিয়ে দেহটি উদ্ধার করে হাবরা হাসপাতালে নিয়ে আসলে সেখানে চিকিৎসক মৃত বলে ঘোষণা করেন। বুধবার রাতেই নাবালিকার পরিবারের পক্ষ থেকে নাবালিকার বন্ধুর নামে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হলে , অভিযোগের ভিত্তিতে হাবড়া থানার পুলিশ নাবালিকার মৃত্যুর জন্য আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগের মামলা দায়ের করে নাবালক বন্ধুকে আটক করে । বৃহস্পতিবার তাকে সল্টলেক জুভেনাইল কোর্টে পাঠানো হয় । হাবড়া থানার পুলিশের পক্ষ থেকে মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য বারাসাত হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে ।গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে হাবড়া থানার পুলিশ । নাবালিকার মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে আসে পরিবারে।

Covid

Co