দেওয়াল লেখাকে কেন্দ্র করে বিজেপি ও তৃণমূলের সংঘর্ষে উত্তপ্ত পানিহাটির নাটাগর মিলনগড়, আহত এক বিজেপি কর্মী

বিধানসভা নির্বাচন ঘিরে যে এবার বাংলার মাটি উত্তপ্ত হয়ে উঠতে চলেছে তার আঁচ পাওয়া গেছিলো বহু আগেই। সাম্প্রতিক অতীতে কোনো দল ক্ষমতা দখল করবেই, এমন মনোভাব নিয়ে বিধানসভা নির্বাচনে নামেনি, ছিলো আসন বাড়াবার প্রতিযোগিতা। কিন্তু গত ২০১৯’র লোকসভা নির্বাচনে অভূতপূর্ব ফল করার পর বিজেপি এরাজ্যে ক্ষমতা দখল নিয়ে প্রায় নিশ্চিত হয়ে ভোটের ময়দানে নেমেছে। অন্যদিকে ক্ষমতা ধরে রাখতে মরিয়া তৃণমূল কংগ্রেসও। ফলে লড়াইটা এবার হাড্ডাহাড্ডি, আর নির্বাচনী লড়াই যখনই ক্ষমতা রক্ষা এবং দখলের লড়াইয়ে পরিণত হয়, তখনই সংসদীয় রাজনীতিতে শুরু হয় রক্তপাত, যেটা আজ দুপুরে ঘটলো পানিহাটির নাটাগড় মিলনগড় এলাকায়। গত বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি প্রার্থী পানিহাটিতে তৃতীয় স্থান পেলেও, লোকসভায় তাদের প্রাপ্ত ভোট ছিলো তুলনায় বেশী। তাই এবার পানিহাটি দখলে আগেভাগেই প্রচারে নেমেছে বিজেপি। সেই কাজেই দলীয় কর্মীরা আজ যখন একটি দেওয়ালে দলীয় চিহ্ন আঁকছিলো, অভিযোগ, সেই দেওয়াল মুছে দেয় তৃণমূল কর্মীরা। পরে পুলিশ এসে বিষয়টি মিটিয়ে দিয়ে যাবার পরেও পার্থ সাহা নামের এক বিজেপি কর্মীকে রাস্তায় আটকে বেধড়ক মারধোরের অভিযোগ উঠলো তৃণমূলের বিরুদ্ধে। ঘটনায় তীব্র উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়, খবর পেয়ে ঘোলা থানার আরক্ষক বিশ্ববন্ধু চট্টরাজ নিজে বিশাল পুলিশ বাহিনী নিয়ে এসে সামাল দেয় পরিস্থিতি। এলাকায় রয়েছে তীব্র উত্তেজনা, চলছে পুলিশী নজরদারী।

Covid

Co