অবসান হলো বাংলার যুগান্তকারী “প্রিয় সোমেন” যুগের, প্রয়াত হলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্র

জন্ম ১৯৪১ সালে অধুনা বাংলাদেশের যশোরে। কৈশোরে হাতে-খড়ি জাতীয়তাবাদী রাজনীতিতে। তারপর কলকাতায় এসে শুরু ছাত্র রাজনীতি। বাংলায় সে সময়ে চলছে বামপন্থার ঝড়। একদিকে জ্যোতি বসু, প্রমোদ দাশগুপ্তের মত বাঘা বাঘা নেতাদের নেতৃত্বে সদ্য গঠিত সিপিএম, অন্যদিকে উত্তরবঙ্গে সাইক্লোন তুলেছেন অতিবাম নেতা চারু মজুমদার। জাতীয়তাবাদী রাজনীতির সেই সংকট সময়ে রাজ্য রাজনীতির হাল ধরতে এগিয়ে আসেন বিশ্ব বিখ্যাত ব্যারিস্টার,জ্যোতি বসুর বাল্যবন্ধু সিদ্ধার্থ শংকর রায়। আর বাম ছাত্র আন্দোলনের মুখোমুখি লড়াইয়ে বাংলার জাতীয়তাবাদী রাজনীতির মুখ হয়ে ওঠেন দুই যুবক। একজন প্রিয়রঞ্জন দাশমুন্সি, অন্যজন সোমেন্দ্রনাথ মিত্র বা সোমেন মিত্র। রাজনীতিতে যার পরিচয় ‘ছোড়দা’ বলেই। সেই সোমেন মিত্রর হাত ধরেই একে একে রাজনীতির মানচিত্রে উল্লেখযোগ্য স্থান করে নিয়েছেন অধীর রঞ্জন চৌধুরী থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়-এর মতো সর্বভারতীয় নেতা নেত্রীরা। বুধবার গভীর রাতে কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে চলে গেলেন রাজ্য রাজনীতির ‘ছোড়দা’, প্রাক্তন সাংসদ, টানা ৬ বার শিয়ালদহের বিধায়ক, প্রদেশ কংগ্রেসের সভাপতি সোমেন মিত্র।তাঁর মৃত্যুতে মুখ্যমন্ত্রী টুইট করে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। টুইটে শোক প্রকাশ করেছেন রাহুল গান্ধীও।

https://youtu.be/xPuqWzFCs-4

Covid

Co