লকডাউন মান্য করাতে সোদপুরে সক্রিয় ভূমিকা নিল পুলিশ, আটক ১০ জন

পানিহাটি পৌরসভা থেকে প্রাপ্ত পরিসংখ্যান অনুযায়ী এই পৌরাঞ্চলে করোণা আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৩৯২ এর গণ্ডি। মৃতের সংখ্যা ১৫। এই তথ্যটি যথেষ্ট উদ্বেগজনক এবং করোণা সংক্রমণ বৃদ্ধির এই হার রুখতে পানিহাটি পৌরাঞ্চল জুড়ে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত ২৫ তারিখ থেকে বেলা বারোটার পর সার্বিক লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে খড়দহ ও ঘোলা থানার যৌথ উদ্যোগে। আর আজ বেলা বারোটা বাজার দশ মিনিট পর থেকেই পৌরাঞ্চলের সবচাইতে জনাকীর্ণ সোদপুর ও সুকচর বাজারে হানা দিলো বিশাল পুলিশবাহিনী। এদিন শুধু নিরামিষ ঘোষণা নয়, পুলিশকে দেখা গেল রণংদেহি ভূমিকায়। একের পর এক অবাধ্য দোকানদারকে দোকান বন্ধ করানোর পাশাপাশি চলল প্রচার‌ও। তবে এদিন পুলিশকে দেখা গেল করোনা সম্পর্কিত যাবতীয় বিধি নিষেধ পালন করেই ময়দানে নামতে। একের পর এক ছোট দোকান, বড় দোকান, শোরুম সর্বত্রই হানা দিল পুলিশ বাহিনী। কোথাও কোথাও তর্ক‌ও হলো ব্যবসায়ী সমিতির লোকজনদের সাথে। আটক করা হয়েছে মোট ১০ জনকে। সব মিলিয়ে পুলিশের এই ভূমিকায় কিন্তু খুশি করোণা আতঙ্কে ভোগা সাধারণ মানুষ। সাধারণ জনজীবন চালু রাখতে সকাল ছয়টা থেকে বেলা বারোটা যথেষ্ট সময়, অন্তত এই করোণা সংকট সময়ে। সামনেই আসছে পুজোর মরশুম, তার আগে যদি এই করোনা রাক্ষসের হাত থেকে সামান্য নিষ্কৃতিও না পাওয়া যায়, ব্যবসায়ী বন্ধুরা ভেবে দেখবেন, আবারো কি নিদারুণ বিপর্যয় গ্রাস করবে আপনাদের। তাই আমাদের অনুরোধ, সামগ্রিক স্বার্থে পৌরসভা ও প্রশাসন ঘোষিত এই আংশিক মেনে চলুন, ভেঙ্গে দিন সংক্রমনের শৃংখল।

https://youtu.be/R_Yn1oYPq_c

Covid

Co