করোনার প্রকোপ রুখতে বাজার গুলিকে নির্দেশিকা দিল কেন্দ্র।

রাজ্য জুড়ে প্রতিনিয়তই বেড়ে চলেছে করণা আক্রান্তের সংখ্যা। আর বর্তমানে উৎসবের মরসুমের পর থেকেই রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে।
কেন্দ্র তরফে একটি নয়া নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে। মূলত, রাজ্যগুলিকে বলা হয়েছে সুপারস্প্রেডার বাজার গুলির দিকে নজর রাখতে কারণ বরাবরই বাজার গুলি থেকেই বেশি পরিমাণে করণা সংক্রমণ ছড়াচ্ছে।
নির্দেশিকা বলা হয়েছে, বাজারের ভেতর প্রত্যেকটি দোকান প্রতিদিন জীবাণুমুক্ত করতেই হবে। যে সমস্ত দোকানে হাতল এর ব্যবস্থা রয়েছে সেইসব দোকানের হাতল পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে। তাছাড়াও, এলিভেটের এর বাটন , চেয়ার এবং টেবিলের উপরের অংশ, হ্যান্ড রেল ইত্যাদি স্যানিটারি করতে হবে বারংবার। পাশাপাশি, যে সমস্ত দোকানের কাউন্টার এর ব্যবস্থা রয়েছে সেই কাউন্টার এর সামনে, মেঝে এবং দেওয়াল দোকান খোলার আগে স্যানিটাইজ করতে হবে।
নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, বাজারে ঢোকার মুখে থার্মাল স্ক্রীনিং এর ব্যবস্থা করতেই হবে কতৃপক্ষকে। এছাড়াও সরকারি মূল্যে মাস্ক বিক্রির বন্দোবস্ত করতে হবে এবং যারা মাস্ক কিনতে অক্ষম তাদেরকে বিনামূল্যে মাস্ক দিতে হবে।
উল্লেখযোগ্য ভাবে বলা হয়েছে, যাদের বয়স ৬৫ বছরের বেশি , কোমর্বিডিটি রয়েছে এমন কোন ব্যক্তি কিংবা ১০ বছরের কম বয়সী এবং অন্তঃসত্ত্বা মহিলাদের বাড়িতে থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। একটি দোকানের বিক্রেতাদের মধ্যে ৬ ফুট এর দূরত্ব বজায় রাখতে হবে, দোকানের ভিতর বাহিরে বিক্রেতাদের লাইন নিয়ন্ত্রণ করতে হবে।
পাইকারি এবং খুচরা উভয় বাজারের ক্ষেত্রেই এই নির্দেশিকা প্রযোজ্য থাকবে।

Covid

Co