ফাঁকা বাড়ির ভেতর থেকে বছর ৪৫ এর এক ব্যক্তির পচা গলা মৃতদেহ উদ্ধারের ঘটনায় তীব্র চাঞ্চল্য ঘোলা চন্ডীতলায়

দিনেশ দাস, পেশায় ওষুধের ব্যবসায়ী, বাড়ির সাথে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে দক্ষিণ নাটাগড়ের শ্বশুর বাড়িতেই থাকা শুরু করেছিলেন গত প্রায় ২৫ বছর ধরে। পদবী বদলে দাস-এর জায়গায় লেখা শুরু করেছিলেন সেন পদবী। কিছুদিন আগে ঘোলা চন্ডীতলায় একটি বাড়িও কিনেছিলেন তিনি। কিন্তু থাকতেন না সেই বাড়িতে। গত ১৭ই জুলাই দুপুরের খাওয়া সেরে সেই যে শ্বশুরবাড়ি থেকে বার হয়েছিলেন তিনি, তারপর থেকেই আর কোন খোঁজ মিলছিল না তার। আজ ঘোলা চন্ডীতলায় যে বাড়িটি কিনেছিলেন দীনেশ বাবু, বাইরে থেকে তালা বন্ধ সেই বাড়ির থেকে তীব্র দুর্গন্ধ বার হতে শুরু করলে, স্থানীয়রা খবর দেন প্রাক্তন পৌরপিতা প্রদীপ বড়ুয়াকে। এরপর পুলিশ এসে দীনেশ বাবুর শ্বশুরবাড়ির লোকজনকে ডাকিয়ে ঘরের তালা খুলে ভিতরে ঢুকে দেখতে পায়, মেঝেতে পড়ে রয়েছে দিনেশ বাবুর পচা গলা মৃতদেহ। ঘটনাটি ঘিরে তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। বাইরে থেকে তালা বন্ধ ঘর থেকে মৃতদেহ উদ্ধার হবার ফলে উঠছে নানান প্রশ্নও। মৃতদেহটি ময়নাতদন্তের পাঠিয়েছে পুলিশ। ময়নাতদন্তের পরেই জানা যাবে মৃত্যর আসল কারণ। শুরু হয়েছে একটি অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলাও।

https://youtu.be/QWc_Ya46-Wk

Covid

Co