খাবারে খবরদার(WHAT IS EATING DISORDER?)

ইটিং ডিসঅর্ডার। প্রথমবার শুনছেন? হয়তো তাই। কিন্তু জানেন কি , প্রায় ২৫ শতাংশের বেশি ভারতীয় কিশোরী আজ এই ডিসঅর্ডারে ভুগছেন। সারা বিশ্বে সংখ্যাটা ৭ কোটিরও বেশি।
ইটিং ডিসর্ডার আসলে কি?এই রোগে আক্রান্ত মানুষেরা নিজেরাও জানেন না,যে তারা এইরকম কোনো রোগের শিকার। ইটিং ডিসঅর্ডারে আক্রান্ত মানুষেরা নিজেদেরকে অত্যাধিক ওজনের মনে করেন,এমনকি যদি তারা স্বাভাবিকের থেকে কম ওজনেরও হয়ে থাকেন।
কিন্তু এই রেয়ার রোগটি কি কারণে হয়?আজকাল সোশ্যাল মিডিয়া বর্তমান প্রজন্মের কিশোর-কিশোরীদের জীবনে ব্যাপকভাবে প্রভাব বিস্তার করে ফেলেছে। বলতে গেলে আজকের কিশোর কিশোরীদের বর্তমানে দুটি জীবন-একটি বাস্তব ও অপরটি হলো সোশ্যাল মিডিয়ার জীবন। সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজেকে পারফেক্ট দেখানোর জন্য, নিজের মানসিক স্বাস্থ্যকে নিজের অজান্তেই অন্ধকারে ঠেলে দিচ্ছে তারা। সোশ্যাল মিডিয়ায় সেলিব্রিটিদের ‘পিকচার পারফেক্ট’ লুক দেখে তারা ভুলে যায় তার পিছনে নিয়মিত শরীরচর্চা ও ডায়েটের পাশাপাশি এডিটিং এরও অবদান রয়েছে। সমস্যাটা আরো বেশি হয় যখন স্থূল চেহারার কোনো কিশোর বা কিশোরী সোশ্যাল মিডিয়ায় BULLYING-এর শিকার হন,তাদের বডি শেমিং করা হয়। এতে কিশোর-কিশোরীরা আরও বেশি মানসিক অবসাদগ্রস্ত হয়ে পড়েন। তার পরেই তারা তৈরী করে ফেলেন ডায়েট চার্ট,যা হয়তো অপ্রয়োজনীয়। অত্যধিক ওজনের না হওয়া সত্ত্বেও অপ্রয়োজনীয় ডায়েট চার্টের ফাঁদে পড়ে নিজের মানসিক স্বাস্থ্যকে অসুস্থ করে ফেলে তারা। তখনি তারা ভুগতে থাকে ইটিং ডিসর্ডার নামক অসুখে। ওজন কমানোর উদ্দেশ্যে ,শরীরের জন্য প্রয়োজনীয় খাদ্যটুকুও ত্যাগ করতে শুরু করে তারা। মানসিক অসুস্থতার পাশাপাশি শারীরিক অসুস্থতাতেও ভুগতে শুরু করে তারা।
তবে এই মানসিক অসুখটির জন্য শুধুমাত্র সোশ্যাল মিডিয়াই নয়, এর জন্য আমরা দায়ী করতে পারি বলিউড সিনেমাগুলিকেও। যেখানে স্লিম চেহারাকে বাহবা দেওয়া হয় ও স্থূল চেহারার মানুষদেরকে হাসির খোরাক বানানো হয়। এই ঘটনা গুলি প্রভাব ফেলে কিশোরী বয়সের কাঁচামনে। তারপরেই তারা স্লিম চেহারা পাওয়ার উদ্দেশ্যে ছুটতে থাকে। আর মানসিক অসুস্থতার শিকার হয়।
তবে কি ওজন কমানোর লক্ষ্য খারাপ?একদমই নয়। স্থূলতা মানুষের শরীরে একাধিক রোগের সৃষ্টি করে। তাই শরীর-স্বাস্থ্য সুস্থ রাখার উদ্দেশ্যে ওজন কমানোর চেষ্টা নিঃসন্দেহে প্রশংসনীয় । তবে সোশ্যাল মিডিয়ায় , তথা সমাজের নজরে নিজেকে সুন্দর করে তোলার জন্য ওজন কমানোর চেষ্টার ফলাফল,মানসিক অসুস্থতা ছাড়া আর কিছুই নয়।
সুস্থ থাকুন,নজর রাখুন মানসিক স্বাস্থ্যের দিকেও।

Covid

Co